সর্বনাম পদ কাকে বলে, সর্বনাম পদ কত প্রকার ও কি কি?

Rate this post

এ প্রবন্ধটির মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন সর্বনাম পদ কাকে বলে, সর্বনাম পদ কত প্রকার ও কি কি? ব্যাকরণ অংশের গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় নিচে একটি সম্পর্কে বিস্তার হবে আলোচনা করলো।

সর্বনাম পদ কাকে বলে

যে পদ বিশেষ্য বা বিশেষণ পদের পরিবর্তে ব্যবহৃত হয়, তাকে সর্বনাম পদ বলে।

সর্বনাম পদের উদাহরণ

  • আমি, তুমি, সে, ওরা, তারা, ইত্যাদি।
  • এই, সেই, ঐ, ইত্যাদি।
  • কত, কয়, কে, কারা, ইত্যাদি।
  • নিজে, নিজের, নিজেরা, ইত্যাদি।

সর্বনাম পদ কত প্রকার ও কি কি

বাংলা ভাষায় সর্বনাম পদ ৬ প্রকার। যথা:

  • ব্যক্তিবাচক সর্বনাম
  • আত্মবাচক সর্বনাম
  • সামীপ্যবাচক সর্বনাম
  • সাকুল্যবাচক সর্বনাম
  • প্রশ্নবাচক সর্বনাম
  • অন্যাদিবাচক সর্বনাম

ব্যক্তিবাচক সর্বনাম

ব্যক্তিবাচক সর্বনাম দ্বারা কে বা কারা বোঝায়। ব্যক্তিবাচক সর্বনাম তিন প্রকার:

  • প্রথম পুরুষ (আমি, আমরা)
  • দ্বিতীয় পুরুষ (তুমি, তোমরা)
  • তৃতীয় পুরুষ (সে, সেরা, তারা)

প্রথম পুরুষ

প্রথম পুরুষ বলতে বক্তাকে বোঝায়। প্রথম পুরুষের সর্বনাম দুই প্রকার:

  • একবচন (আমি)
  • বহুবচন (আমরা)

উদাহরণ:

  • আমি কবিতা পড়ি।
  • আমরা স্কুলে যাই।

দ্বিতীয় পুরুষ

দ্বিতীয় পুরুষ বলতে শ্রোতাকে বোঝায়। দ্বিতীয় পুরুষের সর্বনাম দুই প্রকার:

  • একবচন (তুমি)
  • বহুবচন (তোমরা)

উদাহরণ:

  • তুমি আমাকে সাহায্য করো।
  • তোমরা গান গাও।

তৃতীয় পুরুষ

তৃতীয় পুরুষ বলতে অন্য যেকোনো ব্যক্তিকে বোঝায়। তৃতীয় পুরুষের সর্বনাম তিন প্রকার:

  • একবচন (সে, সেরা)
  • বহুবচন (তারা)

উদাহরণ:

  • সে আমার বন্ধু।
  • তারা স্কুলে পড়ে।

আত্মবাচক সর্বনাম

আত্মবাচক সর্বনাম দ্বারা নিজের কথা বোঝায়। আত্মবাচক সর্বনাম দুই প্রকার:

  • প্রত্যক্ষ আত্মবাচক সর্বনাম (নিজে, নিজের)
  • পরোক্ষ আত্মবাচক সর্বনাম (নিজেরাই, নিজেদের)

প্রত্যক্ষ আত্মবাচক সর্বনাম

প্রত্যক্ষ আত্মবাচক সর্বনাম দ্বারা নিজের কথা সরাসরি বোঝায়।

উদাহরণ:

  • আমি নিজেই কাজটা করবো।
  • তুমি নিজেই তোমার কাজ করো।

পরোক্ষ আত্মবাচক সর্বনাম

পরোক্ষ আত্মবাচক সর্বনাম দ্বারা নিজের কথা অন্যের সাথে যুক্ত করে বোঝায়।

উদাহরণ:

  • আমরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করবো।
  • তোমরা নিজেদের মধ্যে মিলে কাজ করো।

সামীপ্যবাচক সর্বনাম

সামীপ্যবাচক সর্বনাম দ্বারা কাছের বস্তু বা ব্যক্তি বোঝায়। সামীপ্যবাচক সর্বনাম দুই প্রকার:

  • নিকট সামীপ্যবাচক সর্বনাম (এই, এইটা, এইবার, ইত্যাদি)
  • দূর সামীপ্যবাচক সর্বনাম (সেই, সেইটা, সেইবার, ইত্যাদি)

নিকট সামীপ্যবাচক সর্বনাম

নিকট সামীপ্যবাচক সর্বনাম দ্বারা কাছের বস্তু বা ব্যক্তিকে বোঝায়।

উদাহরণ:

  • এই বইটা আমার।
  • এইবার আমি যাবো।

দূর সামীপ্যবাচক সর্বনাম

দূর সামীপ্যবাচক সর্বনাম দ্বারা দূরের বস্তু বা ব্যক্তিকে বোঝায়।

উদাহরণ:

  • সেই ছেলেটা আমার বন্ধু।
  • সেইবার আমি অনেক ভালো খেলেছিলাম।

সাকুল্যবাচক সর্বনাম

সাকুল্যবাচক সর্বনাম দ্বারা একাধিক ব্যক্তি বা বস্তুর মধ্যে নিজেকে অন্তর্ভুক্ত করে বোঝায়। সাকুল্যবাচক সর্বনাম এক প্রকার:

  • আমরা

উদাহরণ:

  • আমরা বন্ধুরা মিলে পার্কে গেলাম।
  • আমরা সবাই এই পরীক্ষায় পাশ করবো।

প্রশ্নবাচক সর্বনাম

প্রশ্নবাচক সর্বনাম দ্বারা প্রশ্ন করা হয়। প্রশ্নবাচক সর্বনাম চার প্রকার:

  • কোন, কোনটা, কোনবার, ইত্যাদি (কোন ব্যক্তি বা বস্তুকে বোঝায়)
  • কে, কারা, ইত্যাদি (কোন ব্যক্তি বা ব্যক্তিদেরকে বোঝায়)
  • **কি, কিটা, কিভাবে

অন্যাদিবাচক সর্বনাম

অন্যাদিবাচক সর্বনাম দ্বারা অন্য, অপর, ভিন্ন, অসদৃশ্য, অন্যপ্রকার, অধিক ইত্যাদি বোঝায়। অন্যাদিবাচক সর্বনাম দুই প্রকার:

  • অন্যাদিবাচক সর্বনাম (অন্য, অপর, ভিন্ন, ইত্যাদি)
  • অধিকবাচক সর্বনাম (অধিক, বেশী, ইত্যাদি)

অন্যাদিবাচক সর্বনাম

অন্যাদিবাচক সর্বনাম দ্বারা অন্য, অপর, ভিন্ন, অসদৃশ্য, অন্যপ্রকার ইত্যাদি বোঝায়।

উদাহরণ:

  • অন্য লোকের কথায় মন দিও না।
  • অপর দিন তোমাকে দেখবো।
  • ভিন্ন জায়গায় যাওয়ার ইচ্ছা আছে।

অধিকবাচক সর্বনাম

অধিকবাচক সর্বনাম দ্বারা অধিক, বেশী, বেশিরভাগ, অধিকতর, ইত্যাদি বোঝায়।

উদাহরণ:

  • সে তোমার চেয়ে অধিক জ্ঞানী।
  • এই ফলটা অন্য ফলের চেয়ে বেশী মিষ্টি।
  • বেশিরভাগ মানুষ ভালো।

সর্বনাম পদের ব্যবহার

সর্বনাম পদ বিভিন্নভাবে ব্যবহৃত হয়। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো:

  • একই ব্যক্তি বা বস্তুকে বোঝাতে

উদাহরণ:

  • আমি কবিতা পড়ি। আমি গান গাই।

  • সে বইটা পড়েছে। সে খেলায় জিতেছে।

  • বিশেষ্য বা বিশেষণ পদের পরিবর্তে ব্যবহৃত হতে

উদাহরণ:

  • এই ছেলেটা আমার বন্ধু।

  • সে আমার বড় বোন।

  • প্রশ্ন করতে

উদাহরণ:

  • কে বা কারা তোমার সাথে এসেছে?

  • কোন বইটা তোমার পছন্দ?

  • অন্যান্য পদকে বিশেষ্য বা বিশেষণ হিসেবে পরিণত করতে

উদাহরণ:

  • তুমি কি আমার বন্ধু হতে চাও? (অন্যাদিবাচক সর্বনামকে বিশেষ্য হিসেবে পরিণত করা হয়েছে)
  • এইটা একটা ভালো বই। (নির্দেশবাচক সর্বনামকে বিশেষণ হিসেবে পরিণত করা হয়েছে)

সর্বনাম পদ বাংলা ভাষার একটি অপরিহার্য অংশ। এটি না থাকলে বাংলা ভাষার বাক্যের গঠন ও অর্থবোধ বিঘ্নিত হয়।

আমাদের আরও একটি প্রবন্ধ পড়ুন: পদ কাকে বলে?

উপসংহার

সর্বনাম পদ বাংলা ভাষার একটি গুরুত্বপূর্ণ পদ। এটি বিশেষ্য বা বিশেষণ পদের পরিবর্তে ব্যবহৃত হয়। সর্বনাম পদকে ৬ প্রকার করা হয়েছে। প্রত্যেক প্রকারেই বিভিন্ন উদাহরণ রয়েছে।

Leave a Comment